কন্টেন্ট রাইটিং কি? কিভাবে সুন্দর একটি কন্টেন্ট তৈরি করবেন দেখেনিন সেরা কিছু টিপ্স ২০২২

আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই আশা করি ভাল আছেন ইনশাল্লাহ আমিও খুব ভালো রয়েছি তার জন্য বরাবরের মতোই আপনাদের সামনে নতুন একটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম আশা করি পুরো আর্টিকেলটি সবাই মনোযোগ সহকারে পড়বেন তাহলে সবকিছু বিস্তারিত ভাবে খুব সহজেই বুঝে যাবেন তাহলে চলুন আজকের আর্টিকেল শুরু করা যাক আমরা এর আগে আরো একটি আর্টিকেল দিয়েছিলাম সেখানে এই তবে তিনি আলোচনার কথা হয়েছিল কিন্তু সময় না থাকার কারণে আমি সেখানে টপিকটি যুক্ত করতে পারিনি সেজন্য আজকে আর্টিকেলে আমরা এই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জানবো আজকে আমাদের টপিক হচ্ছে কিভাবে সুন্দর একটি আর্টিকেল তৈরি করবেন এবং কি কি ধরনের কনটেন্ট তৈরি করতে হয় এ বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জানবো আশা করি আজকে আর্টিকেল থেকে যারা নতুন অনলাইনে এসেছেন তারা অবশ্যই উপকৃত হবেন তাহলে চলুন মূল আলোচনা শুরু করা যাক


(Content) কন্টেন্ট মানি কি এবং কত প্রকার কন্টেন্ট রয়েছে ?

বর্তমানে কনটিং রাইটারদের অনেকটাই চাহিদা যারা কনটেন্ট রাইটিং শিখতে চান তাদেরকে আগে জানতে হবে যে কনটেন্ট এর অর্থ কি মূলত কনটেন্ট শব্দটি ইংলিশ এর বাংলা অর্থ হচ্ছে বিষয়বস্তু আমরা বলে থাকি আর্টিকেল এটি অনেক ধরনের থাকতে পারে তারমধ্যে আমরা যারা ওয়েবসাইটে কাজ করি তাদের জন্য দুটি থাকে একটি হচ্ছে টেক্স কন্টেন্ট রাইটিং অপরটি হচ্ছে ইমেজ কনটেন্ট রাইটিং তো আজকে আমরা সবগুলো বিষয়ে খুব ভালোভাবে জানার চেষ্টা করব যাতে সবাই ভালোভাবে বুঝতে পারি এবং আমি নিজে যতটুকু জানি আপনাদের সাথে শেয়ার করব আশা করি সবাই বুঝতে পারবেন কনটেন্ট এর মধ্যে অনেক ধরনের কনটেন্ট থাকতে পারে যেমন ধরুন রয়েছে ভিডিও কনটেন্ট যেটির বর্তমান খুব চাহিদা আপনারা ইউটিউবে দেখতে পারেন সেখানে যে ভিডিও গুলো বানানো হয় তাদেরকে বলা হয় ভিডিও কনটেন্ট ক্রিয়েটর আপনি যদি ভিডিও কনটেন্ট হতে চান তাহলে আপনাকে শিখতে হবে কিভাবে ভিডিও তৈরি করতে হয় এবং কিভাবে ভিডিও এডিটিং করতে হয় সবচেয়ে কঠিন বিষয়টি হচ্ছে আপনার ভিডিও এডিটিং অবশ্যই খুব সুন্দরভাবে হতে হবে যদি আপনার ভিডিও এডিটিং সুন্দর না হয় তাহলে প্রথমবার কেউ আপনার ভিডিও দেখার পর দ্বিতীয়বার আর সেই ভিডিও মানুষ দেখবে না সেই রকম হয় ওয়েবসাইটের জন্য আপনি যদি কনটেন্ট তৈরি করেন সেই কন্টেন্টটি ও খুব সুন্দরভাবে গুছিয়ে লিখতে হবে যাতে মানুষ একবার পড়লে দ্বিতীয়বার আপনার অন্য একটি পোস্ট পড়ার জন্য আগ্রহ থাকে

 

কনটেন্ট লেখার জন্য সর্বপ্রথম প্রয়োজন কিওয়ার্ড

যারা কন্টেন লিখতে চান বা যারা কন্টেন লিখেন তাদের অবশ্যই জানা রয়েছে যে কি-ওয়ার্ড কি একটি সুন্দর আর্টিকেল তৈরি করতে অবশ্যই আপনার কিওয়ার্ড প্রয়োজন হবে এবং আপনি কিভাবে কিওয়ার্ড খুঁজে বের করবেন একটি পোস্ট তৈরী করার জন্য অনেকেই হয়তো বলতে পারেন যে আমার বেশি কোন ধারণা নেই কোন কাজের উপর তো তাদের জন্য বলব ফ্রিতে কিওয়ার্ড রিসার্চের জন্য আপনি কয়েকটি সেরা ফ্রি কিওয়ার্ড টুলস ব্যবহার করতে পারেন এর জন্য রয়েছে গুগল এবং এছাড়াও আপনি keyword.io এটি লিখে গুগলে সার্চ করলে পেয়ে যাবেন একটি ফ্রী কীওয়ার্ড টুলস সেখান থেকে আপনি আপনার টপিকের জন্য কিওয়ার্ড বেছে নিতে পারেন টপিক ছাড়াই কিভাবে আর্টিকেল লিখবেন ? যারা অনলাইনে আর্টিকেল রাইটিং শিখতে চান তারা প্রথমে হতভম্ব হয়ে যায় যে কি নিয়ে লিখব আমার তো কোন বিষয়ের উপরে কোন ধারণা নেই বা কোনো অভিজ্ঞতা নেই তাহলে আমি কিভাবে আর্টিকেল রাইটিং শিখব এবং সুন্দর একটি আর্টিকেল তৈরি করব আমি আপনাকে বলবো যে আপনি প্রথমে ছোট ছোট বিষয়গুলো নিয়ে আর্টিকেল তৈরি করা শুরু করুন যেমন আমি আপনাকে ছোট্ট একটি উদাহরণ দিচ্ছি "কিভাবে আমি অনলাইন থেকে ইনকাম করবো" এটি সাধারণ একটি উদাহরণ এবং এটি হচ্ছে আপনার পোস্টের টাইটেল এটির বিস্তারিতভাবে আপনি যখন লিখবেন তখন প্রথমে ভালোভাবে এর বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে বলে নিবেন যেমন আমি প্রতিটা পোস্টে সর্বপ্রথম বলেন এই যে পোস্টটিতে আমি কি কি বিষয়ে আলোচনা করব এবং কি কি উপকার পাবেন সবাই এই বিষয়গুলো আগে বলে নিবেন তো তারপর আপনি অনলাইনে কিভাবে আসলেন বা আপনি অনলাইন থেকে কি কি কাজ করে ইনকাম করেছেন সেই বিষয়গুলো নিয়ে লিখবে সবচেয়ে ভালো হবে যে আপনি আপনার পোষ্টের যেকোনো একটিকে কিওয়ার্ড গুগলে সার্চ করুন তাহলে দেখতে পারবেন সেখানে হাজার হাজার পোস্ট এসে পড়বে এবং সেখানে আপনি কিছু পোস্ট খুব মনোযোগ সহকারে পড়বেন তাহলে আপনার অনলাইন ইনকাম সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা হয়ে যাবে যদিও আপনি সেই ইনকামের কাজগুলো করেননি তারপরও সবগুলো ওয়েবসাইটে যখন আপনি এই বিষয়ে ধারণা পেয়ে যাবেন তখন খুব সুন্দরভাবে একটি আর্টিকেল তৈরি করতে পারবেন যেমনটা আমি মাঝেমাঝে করে থাকি ধরুন সময় যাচ্ছে কিন্তু আমি কোন ট্রফিক খুঁজে পাচ্ছিনা তখন আমি যে কোন একটি বিষয়ে গুগলে সার্চ করি এবং পরবর্তীতে সেখান থেকে কিছু পোস্ট মনোযোগ সহকারে পড়ি এবং সাথে সাথে আমার সেই বিষয়টির ওপর সম্পূর্ণভাবে ধারণা হয়ে যায় তো এইভাবে আপনি খুব সুন্দর করে একটি আর্টিকেল তৈরি করতে পারবেন এবং যেকোন বিষয়ে শুধু ছোট্ট একটি লাইন আপনার মাথায় আসে যে এটি নিয়ে লিখলে ভালো হবে তো আপনি সেটি সাথে সাথে গুগলে সার্চ করবেন অথবা বিভিন্ন ধরনের সার্চ ইঞ্জিন যেমন bing ইয়াহু আরও বিভিন্ন ধরনের যত সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে সবগুলো তো আপনি সেই বিষয়টি নিয়ে রিসার্চ করবেন তাহলে দেখতেন সেই বিষয়টির উপর আপনার সম্পূর্ণভাবে ধারনা হয়ে গেছে এবং আপনি খুব সুন্দর ভাবে গুছিয়ে একটি আর্টিকেল তৈরি করতে পারবেন একদম নির্ভুলভাবে এবং আরেকটি বিষয় হচ্ছে যে পোস্ট লেখার সময় বা আর্টিকেল তৈরি করার সময় কোন প্রকার কপি করবেন না যে কারনে আপনি ভালো আআর্টিকেল লিখতে পারেন না বা পারবেন না? অনেকেই সুন্দরভাবে আর্টিকেল লিখতে পারো না বা লিখলেও লেখাগুলো সাথে সম্পূর্ণভাবে কোন প্রকার মিল থাকেনা যে বিষয়টির উপর লেখা সেই বিষয়টি স্পষ্ট ভাবে তুলে ধরতে পারে না তাদের এই ভুলগুলোর কারণ হচ্ছে তারা অন্যের কনটেন্ট চুরি করে অথবা কপি করে থাকে আপনি যদি একজন প্রফেশনাল ভাবে আর্টিকেল রাইটার হতে চান তাহলে আপনি ভুল করেও কখনো কোনো একটি পোস্ট থেকে একটি লাইন ও কপি করবেন না‌ যদি আপনি একটি পোষ্ট থেকে একটি লাইন কপি করে আপনার পোষ্টের পেস্ট করে দেন তাহলে আপনি জীবনেও ভালো একজন আর্টিকেল রাইটার হতে পারবেন না যে কোন বিষয় দেখবেন সেটি নিয়ে আগে ভালোভাবে রিসার্চ করে নিবেন‌ তাহলে আপনাকে আর কোন সময় কনটেন্ট কপি করতে হবে না এই ভুলটি অনেকেই করে থাকেন প্রথমবার তবে ঠিক করা যাবে না এটি খুবই মারাত্মক খারাপ কাজ অন্যের কপি করা তাই দয়া করে কেউ অন্যের কনটেন্ট কপি করবেন না তাহলে আপনি যতই ভালভাবে লিখেন না কেন সেটির কোনো মূল্য থাকবে না বর্তমানে একজন কনটেন্ট রাইটার এর মূল্য অনেক আপনি অনলাইনে যেকোন কাজে যোগ দিতে পারবেন এই কনটেন্টে হয় ডিজিটাল মার্কেটিং আপনি ইমেইল মার্কেটিং যে কোন মার্কেটে করেন আপনাকে সব কিছু নিজে করতে হবে যদি আপনি অন্য কোন জিনিস কপি করে আপনার জিনিস বলে চালিয়ে দেন তাহলে সেটাতো খারাপ কাজ হচ্ছে হচ্ছে আপনি জীবনে ভালোভাবে কোন কাজে সফল হতে পারবে না তাই যে কোন টপিকে আর্টিকেল লেখার আগে ভালোভাবে রিসার্চ করে নিন এবং তারপর সে বিষয়টির উপরে সুন্দর একটি আর্টিকেল তৈরি করুন এবং সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি আপনি নিজে লিখবেন তাহলে যদি কোন একটা লাইন অন্য কোন পোষ্টের সাথে মিলে যায় সেটি কপি হবে না আশাকরি কপিরাইটিং আর্টিকেল এর সম্পর্কে বুঝতে পারছেন

 

ইমেজ Content কিভাবে তৈরি করবেন

ইমেজ কন্টেন হচ্ছে আপনি যে বিষয়টির উপরে একটি আর্টিকেল লিখবেন তার জন্য কিছু ছবি বা স্ক্রীনশট যেগুলো আপনি ব্যবহার করবেন সাধারণত আমরা ওয়েবসাইট বা ইউটিউব এ ভিডিও থাম্বেল ব্যবহার করে থাকি আপনি যে বিষয়টির উপর একটি কনটেন্ট ক্রিয়েট করবেন অবশ্যই সেই বিষয়টি নিয়ে একটি ইমেজ ছবি তৈরি করবেন আপনি একটি টপিকের উপর আর্টিকেল লিখলেন উল্টাপাল্টা একটি ছবি তৈরি করলেন তাহলে সেই ছবি এবং আর্টিকেল এর সাথে কোন মিল থাকলো না এবং যারা ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করেন তাদের জন্য পোষ্টের থাম্বেল এবং পোস্টের ভিতরে থাকা শটগুলো আপনার পোষ্টটি করার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ আপনার উপর নির্ভর করে আপনার ভিজিটর বাড়াতে পারে তাই অবশ্যই যেকোনো টপিকের উপর আর্টিকেল লিখবেন সেটির উপরে একটি ইমেজ তৈরি করে নিবেন তাহলে ইমেজটি দেখেই মানুষ এটি সম্পর্কে কিছুটা ধারণা পেয়ে যাবে এবং আপনার আর্টিকেলটি পড়ে তা সম্পূর্ণভাবে বুঝতে পারবে

 

আর্টিকেল বড় করে লিখার উপকারীতা কি কি

অনেকেই আছেন যারা ছোট্ট ছোট্ট আর্টিকেল তৈরি করেন আমি বিশেষ করে বলব যারা নিজের ওয়েবসাইটের জন্য আর্টিকেল তৈরি করেন তারা অবশ্যই চেষ্টা করবেন আপনার আর্টিকেলটি যেন অনেক বড় হয় কারণ আপনি যে কোন বিষয়ের উপর লেখার না কেন তা নিয়ে গুগলের আগে লেখা হয়ে গেছে যদি বিষয়টি যদি পুরনো হয়ে থাকে যদি আপনি ছোট ভাবে একটি আর্টিকেল লিখেন তাহলে সেটা বলে ভালভাবে রেংক করবে না যার বিনিময়ে আপনি গুগল থেকে কোনপ্রকার ভিজিটর পাবেন না গুগোল থেকে ডিজিটাল কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ওয়েবসাইটের জন্য তো সবাই আমরা চেষ্টা করি যে কিভাবে গুগল থেকে আমার ওয়েবসাইটে প্রতিদিন অনেক পরিমাণে ভিজিটার আনবো এর জন্য আপনাকে সর্ব প্রথমে যে কাজটি করতে হবে আপনি কোন বিষয়ের উপর লেখার না কেন অবশ্যই অনেক বড় করে লেখার চেষ্টা করবেন কারণ পরও আর্টিকেল গুলি গুগলের প্রথমে ব্যাংক করবে আপনার পোস্টে থাকা কোন একটিকে ওয়ার্ড যদি কোন মানুষ গুগলে সার্চ করে তাহলে অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটটি সেখানে শো করবে

 

কিভাবে আপনার আর্টিকেলটি গুগলে খুব সহজেই রেংক করাবেন

আপনার পোস্টটি তো অবশ্যই সুন্দরভাবে লিখবেন এছাড়াও আপনার আর্টিকেলটিতে অবশ্যই কোডিং ইউজ করবেন সাধারণ কিছু কোডিং রয়েছে যেমন HTML সাধারণ কিছু কোন রয়েছে এই কোডগুলো ব্যবহার করবে তাহলে আপনার পোস্টটি গুগলে ভালোভাবে রেংক করবে এবং পুষ্টি চেষ্টা করবেন স্ক্রীনশট ছবি ব্যবহার করার জন্য এতে করে যারা আপনার আর্টিকেলটি পড়বে তারা খুব সহজে বুঝতে পারবে এবং গুগল বুঝতে পারবে যে আপনার আর্টিকেলটি খুব সুন্দর ভাবে গোছানো রয়েছে যার কারণে আর্টিকেলে থাকা কোন একটি কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করলে আপনার ওয়েবসাইটটি অবশ্যই সেখানে দেখাবে এবং কোনো কিছু কপি করা যাবে না যদি আমি আগেই বলে নিয়েছি যে কপি করলে আপনার সেই কনটেন্ট এর কোনো মূল্য থাকবে না আপনার ওয়েবসাইটে যদি আপনি একটি কপি কনটেন্ট পাবলিশ করেন তাহলে আপনি কখনোই ভালো কোন এড নেটওয়ার্ক পাবেন না বিশেষ করে গুগল এডসেন্স এটাতো আরো পাবেন না একটি পোস্ট দেখবেন সেখানে দেখবেন কোনো প্রকার ভুল ত্রুটি হয়েছে নাকি যদি কোন প্রকার ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে সেটি সমাধান করে দিবেন ভালোভাবে কোডিং ব্যবহার করবেন এবং ছবি ব্যবহার করবেন আপনার পোস্টের টাইটেল টি খুব ভালোভাবে দিবেন এবং ডেসক্রিপশন বক্সে এটি কিছু ভালো কিওয়ার্ড লিখে দিবেন তাহলে দেখবেন আপনার পোষ্টটি খুব সহজে গুগলে রেংক হয়ে গেছে আশা করি এই বিষয়ে ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন শেষ কথা আশাকরি আমার পোষ্টটি খুব ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন যদি কোন প্রকার বুঝতে সমস্যা হয় তাহলে অবশ্যই কমেন্টে জানিয়ে দিবেন আমি সেটি সমাধান দেয়ার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং যারা অনলাইনে কাজ করতে আগ্রহী তাদের সাথে অবশ্যই এই পোস্টটি শেয়ার করবেন যাতে তারা অনলাইনে আসতে আরো ভালো কিছু ধারণা পেয়ে যায় এবং কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আমাদের সাথে থাকবেন ধন্যবাদ

Comments